মোবাইলের আসক্তি থেকে বের হবার উপায়!How To Get Rid Of Mobile Phone Addiction


মোবাইল ফোনের আসক্তি থেকে বের হবার উপায়।

মোবাইল ফোনের আসক্তি থেকে বের হবার উপায়!How To Get Rid Of Mobile Phone Addiction
মোবাইল ফোনের আসক্তি থেকে বের হবার উপায়!How To Get Rid Of Mobile Phone Addiction

হেলো বন্ধুরা সবাই কেমন আছে,আসা করি অনেকে ভালো আছেন,আজকে আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ টপিক নিয়ে আলোচনা করবো তাই সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়বেন।

চলুন শুরু করা যাক

যখনি পড়তে বসি তখনি হয়তো ঘুম পায় না হয় মোবাইল নিয়ে টিপা টিপি শুরু করি।
এই মোবাইল ফোনের Addiction যেনো দিন দিন বেরেই চলেছে।কিন্তু মোবাইল ছারা এখন একদিন কাঠানো ভাবতেই ভয় লাগে।
যদি আপনার সমস্যাটা কিছুটা এই রকম হয় তাহলে খুবি দুঃখ্যের সঙ্গে আপনাকে জানানো হচ্ছে আপনি nomo fovia নামক মানসিক রোখে বোকছেন,
যেটার অর্থ হলো smart ফোন থেকে দূরে থাকার ভয়।
যে কোন জিনিষ তখনি নেশা বা Addition হিসাবে গন্য করা হয়,যেটা যখন আপনার জীবন যাপনকে Control করা শুরু করে।
অর্থাৎ আপনার দৈনন্দিন কাজ কর্ম এমনকি সম্পর্ক গুলোর মধ্যে ও একটা Negative প্রভাব বিস্তার কর‍তে শুরু করে।
একটার রিচার্য থেকে জানা গেছে, একজন Smart phone Addition তার ফোনকে ১১৫ বার chack করে, অর্থাৎ প্রতি ঘন্টায় প্রায় ৫ বার।
যদি আপনার ক্ষেত্রে ও এই প্রশ্নটা মিলে যায়, তাহলে রিচার্য অনুযায়ী আপনি ও ঠিক এই category তে পরেন।
বন্ধুদের সাথে meetup এর সময় লান্স বা ডিনার এর সময়,এবং সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ সকালে ঘুম থেকে বিছানা ছেরে উঠার আগেই যদি সবার প্রথমে যদি আপনি নিজের smart phone টা  chack করেন,
তাহলে আপনার জন্য সময় এসে গেছে এটার ব্যাপারে Serious হবার।
কারন এটা শুধু আপনার mentality নয় সাথে আপনার Health কে ও বিষন ভাবে খারাপ করে তুলবে।

আজ এই টপিক এ কিছু Practical এর সমাধান নিয়ে আলোচনা করবো।তো চলুন শুরু করা যাক।

প্রথমে দেখা যাক কি কি কারনে আমরা মোবাইলের প্রতি আসক্ত হয়ে পরি।
তারপর আমরা practicali এর সমাধান বের করবো।

কারন নাম্ভার ওয়ান, Easy Entertainment

মোবাইলের সব চেয়ে বড় pacelity হলো যেটা বর্তমানে সব থেকে বড় সমস্যার মুল কারন এটা সেখানে খুশি নিয়ে চলা সম্ভব, হাতের মুটোর মধ্যে নিয়ে শুয়ে দাড়িয়ে যেভাবে ইচ্ছা ব্যবহার করা সম্ভব।
আর বর্তমানে wifi এর মাধ্যমে মাত্র একটা ক্লিকে যে কোন কিছু Entertainment করা সম্ভব Mb ও খরচ হলো না Entertainment হয়ে গেলো।
তারুপর এটা হাতে ধরে উপর ঘন্টার পর ঘন্টা ধরে রাখতে ও তেমন কস্ট হয় না।
কাজেই এত কম খরচে এত কম কস্টে এতই সুবিধা পেলে আসক্ত হওয়াটা সাভাবিক।
তারউপর Entertainment কার না ভালো লাগে কিন্তু সব কিছু লিমিট পর্যন্ত আমাদের উপকার করে।
যখন Limit এর ঘন্ডি টা পেরিয়ে যায় তখন উপকার এর বদলে অপকার করতে শুরু করে।
পড়তে পড়তে বা খেতে খেতে একবার chack করে নিলাম whatsapp কেউ sms করলো নাকি  fb তে কেউ nock করলো।যেহেতু কম খরচে এর মাধ্যমে অনেকটা Reword পাওয়া যায়।তাই এই গুলোর প্রতি আমরা খুব তারাতারি আসক্ত হয়ে পরি।
তাই এই আসক্তি থেকে বাচতে হলে আমাদের একটা Limit mentain করতে হবে।

কারন নাম্ভার টু, Fake urgency

সকালে ঘুম থেকে উঠেই বেশির ভাগই আমরা নিজেকে একটা কমন excuse দিয়ে smart phone টা chack করতে শুরু করি।
দেখি একবার important কিছু মিস করলাম না তো।
তারপর important কিছু না থাকলেও unimportant জিনিষগুলো নিয়ে ঘাটতে শুরু করে দেই।
এবং ঘুম থেকে উটতেই মাথা ঐ দিকে কাজ করতে শুরু করে দেয়।
social media fb whatsapp এই সব যেমন আমাদের fake urgency create করে মনে হয় যেনো একটা কিছু মিস হয়ে গেলে ভিষন লস হয়ে যাবে।
যেটা ১৬ আনায় fake একটা অনুভূতি।
কেউ আপনাকে sms করলে তার ans সকালে না দিয়ে বিকালে দিলে আপনার কোন লাভ বা ক্ষতি যাবে না।
মজার বেপার হলো সেটা আমরা খুব ভালো করে জানি।
তবুই এই গুলা তো strong হয় আমরা এই গুলার কাছে হার মেনে নেই।
পড়তে পড়তে ১০ মিনিট পর পর whatsapp chack করতে থাকি।যদি কোন নতুন মেসেজ এসে থাকে।
মেসেজ না আসলে ভালো আসলে তো আরো ভালো।
আর এদিকে পড়া লাটে।
তো আমাদের এমন কিছু উপায় বের করতে হবে যাতে আমরা এই কারন গুলোকে সহজে  হেন্ডেল করতে পারি।

কারন নাম্ভার Three, No fashion

লক্ষ করে দেখবেন যখন আমরা বোর ফিল করি তখন আমরা বার বার মোবাইল chack করতে তাকি।
দেখি যদি কোন interesting কিছু পাওয়া যায়।এটা মানুষের Basic Nature. সব সময় বোরিং কে Avoid করার চেস্টা করা।শুন্য মস্তিষ্ক শয়তানের ভাষা।
কথাটা হয়তো আপনি আগেই শুনেছেন।যখন আমরা এই রকম কিছু কাজ করি যা করতে আমাদের সত্যি খুব ভালো লাগে।এবং তা করার পেছনে কোন বড় কারন থাকে। তখন সেই সময়ে আমরা মোবাইলের কথা যেনো ভুলেই যাই।কিন্তু এখানে সমস্যাটা হলো এই রকম কোন কাজ করার সময় ও মোবাইলটা হাতের পাশেই থাকে তাহলে বার বার মোবাইকে চোঁখ পড়লে সেটা টিপার ইচ্ছা জাগতেই পারে।

যে কোন Habbit এর ৩ টি পার্ঠ থাকে, Tigger,Rutin,Reward.

মোবাইল ফোনের ক্ষেত্রে সেটা হাতের পাশে চোখের সামনে বা   Notification এর আওয়াজ গুলো Tigger হিসাবে।
তারপর scran টা Unlock করে whatsapp, facebook,একবার করে chack করা Rutin হিসাবে।
এবং সেগুলো থেকে পাওয়া entertainment Reword হিসাবে কাজ করে।
এই Habit সার্কেলটাকে আমাদের ব্রেক করতে হবে।

তো চলুন এবার একে একে Solution গুলো দেখা যাক।

Solution No1. No phone zoon

রিচার্য থেকে জানা গেছে একটা ভালো ঘুম দিয়ে উঠার পর, পরবর্তী মিনিমান ৩ ঘন্টা পর্যন্ত আমাদের whole Power Energy এবং Productivity সাধারণত সবার উপরে থাকে।এই সময়ে আমাদের properly utilised করা খুবই দরকার তার জন্য এই সময়টা আমাদের No Phone zoon হিসাবে ব্যবহার করতে হবে।
সকালে ঘুম থেকে উটার পর থেকে পরবর্তী ৩ ঘন্টা এবং দুপুরে বা school বা কলেজ থেকে ফিরে পরবর্তী ৩ ঘন্টা মোট এই ৬ ঘন্টা আমাদের most important কাজ গুলো করর নিতে হবে।
আর এই সময়টা হবে No phone Zoon. এইসময়ের জন্য ফোনটাকে হাতের বাইরে কোন জাগয়ায় রেখে দিতে হবে।
যাতে মোবাইল ফোনটা চোখের সামনে থেকে Habit সার্কেলটা activate না হয়ে যায়।
হতে পারে এই সময় কোন urgent Email আসলো বা Urgent  whatsapp এর মেসেজ করলো সেক্ষেত্রে বলি মেইল যত urgent হোক না কেন ৩ ঘন্টা পর chack করলে কোন রকম ক্ষতি হবার সম্ভাবনা নেই।
যদি কারোর আপনাকে সত্যি কোন urgent দরকার পরে তাহলে whatsapp এ রিপ্লাই না পেলে একটা না হয় কল দিবে।urgency আসতেই পারে তারজন্য ফোন একদম অফ করে দেওয়াটা Recommend করি না।
কারন তাতে মন বার বার ঐ দিকে যেতে থাকে।
silent করার ও ধরকার নেই।শুধু নেট connection টা অফ করে চোখের সামনে থেকে দূরে রাখলেই যতেষ্ট।
এতে মন আর বুদ্ধির মধ্যে একটা বেলেন্স  create হবে।
No phone Zoon mentaine করলে দিনে আপনাকে ৬ ঘন্টা Entertainment ছারাই থাকতে হবে।
বাকি সময় চাইলে আপনি নিজেকে একটু
Entertainment দিতেই পারেন।
এবং নিজেকে Entertainment দেওয়াটা অবশ্যই জরুরি।

আরো বিশেষ বিশেষ কাজের সময় মোবাইল ফোন Avoid করা উচিত।


যেমন নাম্ভার One, খাওয়ার সময়কারন মনোযোগ দিয়ে না খেলে আমাদের হজম শক্তির উপর প্রভাব ফেলে।নাম্ভার two, কারো সাথে মুখামুখি বসে কথা বলার সময়।কারন এটা সামনের জনকে অপ্রয়োজনীয় অনুভব করায়।নাম্ভার Three ঘুমানো যাওয়ার meximum ত্রিশ মিনিট আগে কারন মোবাইলের blue light আমাদের ঘুমের ক্ষতি করে আমাদের Health এর ক্ষতি করে।এভাবে আমরা একটা  লিমিট করে মোবাইল ফোন use করলে সহজে মোবাইল ফোন ও use করতে পারবো।সাথে সাথে নিজের Health সম্পর্ক গুলো ও mentain রাখতে পারবো।

Solution No2 Flowing Fashion

যার জীবন যত বেশি লক্ষহীন সে তত বেশি নেশায় আসক্ত। যদি জিবনে মিনিংফুল কিছুই করার না থাকে।
তাহলে Timepass করার জন্য মোবাইল ফোন অন্যতম একটা বেস্ত অফশন।আর সহজে আমাদের মন এটাকে বেচে নেয়।তাই এর হাত থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য আমাদের নিজের Fashion কে খুজে বের করতে হবে।
  Fashion খুজে বের করলে আপনার মন সব সময় আপনার ঐ কাজের উপর থাকবে।
যার ফলে মোবাইল Addiction এর জন্য আর কোন জায়গা বেচে থাকবে না।
যেমন মহান কেউ একজন বলেছেন,
Life is what Happen when your sell phone is charging.
তথ্য  Collect :- Youtube
তো বন্ধুরা আজ এই পর্যন্ত ভালো লাগলে আপনার অন্য বন্ধুদের মাঝে অবশ্যই শেয়ার করবেন।
আল্লাহ হাফিজ,
ভালো থাকুন,সুস্থ থাকুন।

Post a Comment

0 Comments