এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের জন্য কিছু দিক নির্দেশনা

এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের জন্য কিছু দিক নির্দেশনা

এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের জন্য কিছু দিক নির্দেশনা

আসছালামু আলাইকুম সবাই কেমন আছো? আশা করি, আল্লাহ রহমতে ভালো আছো । দেখতে দেখতে  এইচ.এসসি. পরীক্ষার্থীদের এক্সাম খুবই নিকটে চলে আসছে । তারই সাথে সাথে তোমাদের চিন্তার পরিমাণও ধৈয্যের বাহিরে চলে গেছে । প্রত্যেক শিক্ষার্থী পরীক্ষা নিয়ে চিন্তিত থাকাটাই হলো স্বাভাবিক । এই চিন্তায় যাতে কোন কিছু ভুলে না যান এই জন্য কিছু দিক নির্দেশনা আপনাদের জন্য  শেয়ার করলাম।
  • ১.HSC পরীক্ষায় এডমিট আর রেজিস্ট্রেশন কার্ড এগুলো খুব হারায়,তাই পারলে আজকে রাতে এডমিট ও রেজিস্ট্রেশন কার্ডের উপর তোমার মোবাইল নাম্বারটি পেন্সিল দিয়ে, ঠিক এর পেছনে লিখে রাখবে,যাতে করে এটি হারালেও তুমি তাড়াতাড়ি খুজে পেতে পার।
  • ২.পরীক্ষায় হলে সৃজনশীল এর খাতা ও MCQ এর সীট পাওয়ার পর,প্রথমে দেখতে হবে এগুলোর উপরে ৮-১০ ডিজিটের একটা কোড নম্বর থাকে,যেমন : ১৩৫৬৭৮ এই টাইপের। কেননা এই কোড না থাকলে খাতা বাতিল বলে গন্য হবে,তাহলে ভাল পরীক্ষা দিয়েও কোনো লাভ হবে না।

আরো পড়ুন [এক্সামে ভালো নম্ভর পাওয়ার ৫ টি টিপস]

  • ৩.এরপর তোমার রোল এবং রেজিস্ট্রেশন পূরন করার সময়, প্রথমে প্রতিটি সংখ্যারর ঘরে আগে একটা একটা করে দাগ দিবে,তারপর একবার চেক করে,ঘরগুলো পূর্ন করবা।
  • ৪.খাতার সাথে একটা করে সিট দিবে, এই সিট পাওয়ার পর তুমি প্রথমে দেখে নিবে,সিটে তোমার রোল আর রেজিষ্টেশন নম্বর ঠিক আছে কিনা, তারপর সেখানে তোমার সাতটা বিষয়ের নাম লিখতে হবে,মনে রাখতে হবে, অফসোনাল বিষয়ের জন্য আলাদা ঘর থাকবে,অর্থাতত একঘরে অফসোনাল বিষয় বাদে ছয়টা বিষয়, আর একঘরে শুধু অফসোনাল বিষয় লিখবে। ছয়টা বিষয় এভাবে লিখবে বাংলা,ইংরেজি কমা দিয়ে। আর প্রতিদিন ঐ সিটে দুইটা করে সাক্ষর, একটা mcq, আর একটা সৃজনশীল এর জন্য। তারপর তারিখ,খাতার নম্বর সতর্কতার সাথে লিখতে হবে।
  • ৫.পরীক্ষায় খাতায় পেন্সিল দিয়ে মার্জিন টানা সবথেকে উওম,পারলে খাতা মার্জিন পেন্সিল দিয়ে টানবে।

  • ৬.নীল কলম দিয়ে প্রশ্নের নম্বর লেখা যাবে, যেমন : ১ এর ক নং প্রশ্নের উওর, এ কথাটি নীল কলম দিয়ে লিখতে পারবে, লাল আর গোলাপি কলম ব্যবহার নিষিদ্ধ। সৃজনশীলের উওর নীল কলম দিয়ে লেখা যাবে না।

আরো পড়ুন [ এক্সামের ভয়কে দূর করার উপায় ]

  • ৭.পরীক্ষার হলে ফাইল নিয়ে যাওয়া যাবে,সাথে বক্স নিতে পার। ৩-৪টা কলম,দুটি পেন্সিল ও একটি রাবার নিবা।
  • ৮.মনে রাখতে হবে,এটা তোমার জীবনের শেষ বোর্ড পরীক্ষা, তাই সকালে উঠে মুসলমানরা নামাজ,হিন্দুরা পূরা, অন্যান্য ধর্মের কাজগুলো করে যাবে।

  • ৯.কমপক্ষে হাতে ১ ঘন্টা ১৫ মিনিট নিয়ে বের হবে,যারা ঢাকা ও তার পার্শবর্তী তারা আরো তাড়াতাড়ি বের হবে।
  • ১০.সৃজনশীল লেখাগুলো একটু গ্যাপ দিয়ে ফাকা করে লিখবে,আর MCQ আগে,যেগুলো ১০০% সিওর সেগুলো দাগাবে,আর যেগুলো confusion থাকবে,সেগুলো পেন্সিল দিয়ে প্রশ্নে দাগাবা। পরীক্ষা শেষে জিনিসপএ সব গুছিয়ে নিবে।

সবার জন্য দোয়া ও শুভকামনা রইল।
ভালো থাকুন আর সাথেই থাকুন Blognet24.com এর। 

Post a Comment

0 Comments