আকিকা না করলে কি হবে? | কত বছর বয়স পর্যন্ত আকিকা দেওয়া যায় | নিজের আকিকা নিজে দিতে পারবে

আকিকা না করলে কি হবে? | কত বছর বয়স পর্যন্ত আকিকা দেওয়া যায় | নিজের আকিকা নিজে দিতে পারবে

আকিকা না করলে কি হবে? | কত বছর বয়স পর্যন্ত আকিকা দেওয়া যায় | নিজের আকিকা নিজে দিতে পারবে


আসসালামু আলাইকুম সম্মানিত পাঠকবৃন্দ সবাইকে আমাদের ওয়েবসাইটে স্বাগতম। প্রিয় পাঠক আসা করি সবাই আল্লাহর রহমতে ভালো আছেন। বন্ধুরা বর্তমান সময়ে আমরা যে কোন তথ্যের জন্য গুগলে সার্চ করে থাকি। তাই ভিবিন্ন ধরনের পিক ডাউনলোড করতে আমাদের গুগলের সাহায্য নিতে হয়।


প্রিয় পাঠক আজকে আমরা আপনাদের জন্য নিয়ে এসেছি আকিকা না করলে কি হবে? - কত বছর বয়স পর্যন্ত আকিকা দেওয়া যায় - নিজের আকিকা নিজে দিতে পারবে সম্পর্কে। আপনি এই সমস্ত ছবি হোয়াটসঅ্যাপ, ইনস্টাগ্রাম বা অন্য কোন সোশ্যাল মিডিয়াতে ব্যবহার করতে পারেন।  আমাদের সংগ্রহে আছে আকিকা সম্পর্কে কিছু বানী। আমি আশা করি এই ছবিগুলো আপনার প্রোফাইল পিকচার হিসেবে ব্যবহার করতে কাজে লাগবে। তাই দেরি না করে ডাউনলোড করুন আপনার পছন্দের ছবি।

আকিকা না করলে কি হবে? 

আকিকা হল এক ধরনের সদকা এবং এটি করা নবীর সুন্নাহ । জাফর আল-সাদিকের অন্য একটি হাদীস অনুসারে, প্রত্যেক জন্মগ্রহণকারী নবজাতকের জন্য আকীকা বাধ্যতা; যদি তারা সন্তানের জন্য আক্বিকাহ না করে তবে তা মৃত্যু বা এ ধরনের বিপর্যয়ের মুখোমুখি হবে। পিতা-মাতার পক্ষে আকিকার মাংস খাওয়া সুন্নত ।

কত বছর বয়স পর্যন্ত আকিকা দেওয়া যায় 

সামর্থ্য না থাকলে আকিকা করা সুন্নাহ নয়। আকিকা করার সুন্নাহ হচ্ছে, সামর্থ্য থাকা। এই ক্ষেত্রে আকিকা করা আপনার জন্য সুন্নাহ নয়। সুতরাং, আপনি যদি সামর্থ্যবান হন, তাহলে পরবর্তীতে আকিকা করতে পারেন, একদল ওলামায়ে কেরাম বলেছেন, যদি সে শিশু বয়সে থাকে, দুই বছরের মধ্যে যদি বয়স থাকে, তাহলে একদল ওলামায়ে কেরাম বলেছেন, তার আকিকা করা জায়েজ রয়েছে। তবে এই মাসয়ালার মধ্যে আলেমদের দ্বিমত রয়েছে। একদল ওলামায়ে কেরাম বলেছেন, তিনি যে কোনো সময় আকিকা করে দিতে পারবেন। আরেকদল ওলামায়ে কেরাম বলেছেন, যেহেতু আকিকার হক হচ্ছে এই সময় আর এই সময়ের মধ্যে যেহেতু তিনি আকিকা করেননি, তাই আকিকা আর না করলেও কোনো অসুবিধা নেই। যেহেতু আপনার আকিকা করার কোনো সামর্থ্যই নেই সুতরাং, আপনার ওপর আকিকার বিষয়টি প্রযোজ্য হবে না।

নিজের আকিকা নিজে দিতে পারবে

সন্তান জন্মের সপ্তম, ১৪তম, কিংবা ২১তম দিন পর্যন্ত আকিকা করা মুস্তাহাব। তারপর আর মুস্তাহাব থাকে না। ওই সময় পার হওয়ার পরও কেউ আকিকা করতে চাইলে তা মোবাহ তথা বৈধ হবে। (নাসায়ি : ৭/১৬৪; আল-ইনায়াহ : ৪/২৯৫; উমদতুল কারী : ২১/৮৩; কিতাবুল ফাতাওয়া : ৪/১৭৪)। ২. সন্তানের যাবতীয় ভরণ-পোষণের দায়িত্ব যেহেতু পিতার ওপর তাই সন্তানের আকিকা করার দায়িত্বও পিতার ওপর। তদুপরি মা যদি সন্তানের আকিকা করে তাহলে তা আদায় হয়ে যাবে। সেক্ষেত্রে পিতার পক্ষ থেকে আবারও আকিকা করতে হবে না। (আবু দাউদ : ৩/১০৭; 

আল মুহিতুল বুরহানি : ৩/৫৭২; আপকি মসায়েল আওর উনকা হল : ৫/৪৭৯)। ৩. হ্যাঁ, কোরবানির পশুর মধ্যে আকিকার অংশ রাখা যাবে। (তাবয়িনুল হাকায়েক : ৩/২০৭; আদ্দুররুল মুখতার : ৬/৩২৬; আল হিন্দিয়্যাহ : ৫/৩০৪; কিতাবুল ফাতাওয়া : ৪/১৬৮)

















Tag:-আকিকা না করলে কি হবে? | কত বছর বয়স পর্যন্ত আকিকা দেওয়া যায় | নিজের আকিকা নিজে দিতে পারবে

Contact Form

Send