কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে কত আসন | কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে কত সিট জেনে নিন

কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে কত আসন ২০১৯ 

কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে কত আসন | কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে কত সিট আছে

আসছালামু আলাইকু? বন্ধুরা সবাই কেমন আছেন?আসা করি আল্লাহর রহমতে সবাই অনেক ভালো আছেন।  এইচএসসি রেজাল্ট বের হবার পর আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য প্রস্তুতি নিতে হবে।তার আগে আমাদের সিন্ধান্ত নিতে হবে আমরা কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হবো। এই জন্য আমাদের কোন বিশ্ববিদ্যালয়ের কত পয়েন্ট লাগবে এটা জানা প্রয়োজন এই নিয়ে আমার আরো একটি পোস্ট আছে।
নিচে লিংক দিচ্ছি পরে নিবেন।
এখান থেকে পড়ুনঃ-কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে কত পয়েন্ট লাগবে

তারপর আমাদের জানতে হবে কোন বিশ্ববিদ্যালয়ের কত আসন আছে আজকে আমাদের আলোচনার বিষয় এটা।

নবম-দশম শ্রেণির সকল বই একটি Apps এর মাধ্যমে পড়তে এখানে ক্লিক করুন

এই তথ্যটা প্রতিটি এক্সামের ভর্তি সার্কোলার দেওয়ার পর জানা যায় কোন বিশ্ববিদ্যালয়ের কত সিট আছে
তাই আপনাদের সঠিক তথ্য পেতে অপেক্ষা করতে হবে আমরা এই পোস্টেই ইডিট করে সঠিক তথ্য সময় মত দিয়ে দেবো। নিচে পুরাতন হিসাব অনুযায়ী আপাদত 
সকল বিশ্ববিদ্যালয়ের ইউনিট প্রতি আসন সংখ্যা হিসাব দেওয়া হলো।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (DU) আসন সংখ্যাঃ

ক ইউনিট- ১৭৫০টি,
খ ইউনিট- ২৩৭৮টি,
গ ইউনিট- ১২৫০টি,
ঘ ইউনিট- ১৭১৫টি,
চ ইউনিট- ১৩৫টি।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (CU) আসন সংখ্যাঃ

এ ইউনিট- ১২১৪টি,
বি ইউনিট- ১৩৪৬টি,
সি ইউনিট ৪৪৮টি,
ডি ইউনিট- ১১৮১টি,
ই ইউনিট- ১২০টি,
এফ ইউনিট- ৬০টি,
জি ইউনিট- ৪০টি,
এইচ ইউনিট- ৪২০টি,
আই ইউনিট- ১০০টি।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের আসন সংখ্যাঃ

A ইউনিট : ১০৬১
B ইউনিট : ৫৬০ ( ব্যবসায় শিক্ষা : ৪৫৫,
বিজ্ঞান + মানবিক : ১০৫)
C ইউনিট : ৯৪২
D ইউনিট : ৬৫২
E ইউনিট : ৯৫৮

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (JNU) সিটের সংখ্যাঃ

এ ইউনিট- ৭৯০টি,
বি ইউনিট- ৭১০টি,
সি ইউনিট- ৬২০টি,
ডি ইউনিট- ৫৪০টি,
ই ইউনিট- ১০০টি।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (JU) সিটের সংখ্যাঃ

এ ইউনিট- ৪৩৮টি,
বি ইউনিট- ৩৫২টি,
সি ইউনিট- ৪৫০টি,
ডি ইউনিট- ৩৪০টি,
ই ইউনিট- ২০০টি,
এফ ইউনিট- ৬০টি,
জি ইউনিট- ৬০টি,
এইচ ইউনিট- ৫০টি।

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের আসন সংখ্যাঃ

‘ক’ ইউনিটে ৫০৫ আসন।
‘খ’ ইউনিটে ৩২০ আসন।
‘গ’ ইউনিটে ২৪০ আসন।
‘ঘ’ ইউনিটে ২৩৫ আসন।
.
কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় (COU):সর্বমোট ৮০০ টি।

জাতীয় কবি কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় (KNU) আসন সংখ্যাঃ

বিজ্ঞান- ৬০,
বাণিজ্য-১৬৫,
মানবিক- ৪৫০ টি।

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের (BRUR) আসন সংখ্যাঃ

মোট ১২৪৫টি।

সিলেট শাহ্জালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (SUST) আসন সংখ্যাঃ

বিজ্ঞান বিভাগ- ৮০০ টি,
সকল বিভাগ- ৬০০ টি।

 যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (JUST) আসন সংখ্যাঃ-

বিজ্ঞান- ৫৩০টি,
সকল বিভাগ- ৮০টি।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (BSMRSTU) আসন সংখ্যাঃ-

বিজ্ঞান- ৩৭৩টি,
বাণিজ্য- ৪৯টি,
মানবিক- ১০৮টি।

পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (PSTU) আসন সংখ্যাঃ-

মোট ৬১৭টি।

হাজী দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, দিনাজপুর (HSTU) আসন সংখ্যাঃ-

মোট ১৩৩৩টি।

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (NSTU) আসন সংখ্যাঃ-

বিজ্ঞান- ৭৮০টি,
বাণিজ্য- ৫৫টি,
মানবিক- ২৫টি।

মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় টাঙ্গাইল(MBSTU) আসন সংখ্যাঃ-

বিজ্ঞান- ৬৬২টি,
সকল বিভাগ- ১১০টি।

পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (PUST) আসন সংখ্যাঃ-

বিজ্ঞান- ৪২০টি,
বাণিজ্য ও মানবিক- ১৩০টি।

বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (BUET) আসন সংখ্যাঃ-

মোট ১০০০টি।

চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (CUET) আসন সংখ্যাঃ-

সর্বমোট ৬৩০টি।

রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (RUET) আসন সংখ্যাঃ-

মোট ৭২০টি।

খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (KUET) আসন সংখ্যাঃ-

মোট ৮১৫টি।

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (BAU) আসন সংখ্যাঃ-

মোট ১২০০টি।

শেরে বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (SAU) আসন সংখ্যাঃ-

মোট ৫০০টি।

 বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয় (BTex) আসন সংখ্যাঃ-

মোট ৪১০টি।

ইসলামিক ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজি (IUT) আসন সংখ্যাঃ-

বিএসসি- ২৩৫টি,
ডিপ্লোমা- ৪০টি।

বন্ধুরা কোন জায়গায় কোন তথ্য ভুল মনে হলে আপনার যদি জানা থাকে আমাদেরকে অবশ্যই কমেন্ট বা ইনবক্সে  বলবেন আমরা ঠিক করে দেবো।


Post a Comment

0 Comments